নবি ও রসুলের সংখ্যা | দ্বিতীয়বারের ওহি | মহানবী হযরত মুহাম্মদ ( সাঃ ) জীবন

নবি ও রসুলের সংখ্যা | দ্বিতীয়বারের-ওহি, মুসনাদ ইমাম আহমদের একটি ‘হাসান’ হাদিসে আছে, একবার আবুজর আল- গিফারি (রা) নবি করিমকে (সা) জিজ্ঞেস করেছিলেন, “আল্লাহ কতজন রসুল প্রেরণ করেছেন?” নবিজি (সা) জবাবে বলেছিলেন, “৩১০ এবং আরও কিছু।”

 

নবি ও রসুলের সংখ্যা | দ্বিতীয়বারের ওহি | মহানবী হযরত মুহাম্মদ ( সাঃ ) জীবন
নবি ও রসুলের-সংখ্যা | দ্বিতীয় বারের ওহি | মহানবী হযরত মুহাম্মদ ( সাঃ ) জীবন

 

নবি ও রসুলের সংখ্যা | দ্বিতীয়বারের ওহি | মহানবী হযরত মুহাম্মদ ( সাঃ ) জীবন

[উল্লেখ্য, বদরের যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী মুসলমানদের সংখ্যা ৩১০ এবং আরও কিছু ছিল। আবার নদী পার হওয়ার সময় তালুতের সৈন্যসংখ্যাও একই ছিল (সুরা বাকারা, ২:২৪৯)। এই সংখ্যাটি বারবার উল্লেখের কারণে মনে হয়, সম্ভবত এর কোনো তাৎপর্য রয়েছে।] এরপর আবুজর (রা) জিজ্ঞেস করলেন, “কতজন নবি ছিলেন?” নবিজি (সা) এবার বললেন, “এক লক্ষ চব্বিশ হাজার।”

 

islamiagoln.com google news
আমাদের গুগল নিউজে ফলো করুন

 

আবুজর (রা) ও নবিজির (সা) কথোপকথন থেকেও বোঝা যায়, নবি ও রসুল এক নয়। এ থেকে আমরা আরও বলতে পারি, প্রত্যেক রসুলই নবি, তবে প্রত্যেক নবিই রসুল নন।

 

নবি ও রসুলের সংখ্যা | দ্বিতীয়বারের ওহি | মহানবী হযরত মুহাম্মদ ( সাঃ ) জীবন
নবি ও রসুলের-সংখ্যা | দ্বিতীয় বারের ওহি | মহানবী হযরত মুহাম্মদ ( সাঃ ) জীবন

 

আবার রসুল দের মধ্যে কয়েকজন তুলনা মূলক ভাবে উচ্চ তর মর্যাদার অধিকারী। তাঁরা হলেন নুহ (আ), ইব্রাহিম (আ), মুসা (আ), ইসা (আ) এবং মুহাম্মদ (সা)। তাঁদের কে এক সঙ্গে ‘উলু আল – আজম ” নামেও অভিহিত করা হয়।

আরো পড়ুনঃ

Leave a Comment