সূরা মারইয়াম আয়াত ৫৮ [হযরত জাকারিয়া এর প্রার্থনার কথা,বিবি মারইয়াম এবং পুত্র হযরত ঈসা-এর সম্পর্কে বলা হয়েছে ]সূরা ১৯। কুরআন ।

সূরা মারইয়াম আয়াত ৫৮ , সূরা মারইয়াম (আরবি ভাষায়: سورة مريم‎‎) মুসলমানদের ধর্মীয় গ্রন্থ কুরআনের ১৯ নম্বর সূরা; এর আয়াত অর্থাৎ বাক্য সংখ্যা ৯৮ এবং রূকু তথা অনুচ্ছেদ সংখ্যা ৬। সূরা মারইয়াম মক্কায় অবতীর্ণ হয়েছে। এই সূরাটির প্রথমে হযরত জাকারিয়া এর প্রার্থনার কথা, পরে বিবি মারইয়াম এবং পুত্র হযরত ঈসা-এর সম্পর্কে বলা হয়েছে।

সূরা মারইয়াম আয়াত ৫৮

সূরা মারইয়াম আয়াত ৫৮

সূরা মারইয়াম

এরাই তারা-নবীগণের মধ্য থেকে যাদেরকে আল্লাহ তা’আলা নেয়ামত দান করেছেন। এরা আদমের বংশধর এবং যাদেরকে আমি নূহের সাথে নৌকায় আরোহন করিয়েছিলাম, তাদের বংশধর, এবং ইব্রাহীম ও ইসরাঈলের বংশধর এবং যাদেরকে আমি পথ প্রদর্শন করেছি ও মনোনীত করেছি, তাদের বংশোদ্ভূত। তাদের কাছে যখন দয়াময় আল্লাহর আয়াতসমূহ পাঠ করা হত, তখন তারা সেজদায় লুটিয়ে পড়ত এবং ক্রন্দন করত।

Those were they unto whom Allâh bestowed His Grace from among the Prophets, of the offspring of Adam, and of those whom We carried (in the ship) with Nûh (Noah), and of the offspring of Ibrâhim (Abraham) and Israel and from among those whom We guided and chose.

When the Verses of the Most Beneficent (Allâh) were recited unto them, they fell down prostrating and weeping.

সূরা মারইয়াম
সূরা মারইয়াম

أُوْلَئِكَ الَّذِينَ أَنْعَمَ اللَّهُ عَلَيْهِم مِّنَ النَّبِيِّينَ مِن ذُرِّيَّةِ آدَمَ وَمِمَّنْ حَمَلْنَا مَعَ نُوحٍ وَمِن ذُرِّيَّةِ إِبْرَاهِيمَ وَإِسْرَائِيلَ وَمِمَّنْ هَدَيْنَا وَاجْتَبَيْنَا إِذَا تُتْلَى عَلَيْهِمْ آيَاتُ الرَّحْمَن خَرُّوا سُجَّدًا وَبُكِيًّا

Ola-ika allatheena anAAama Allahu AAalayhim mina alnnabiyyeena min thurriyyati adama wamimman hamalna maAAa noohin wamin thurriyyati ibraheema wa-isra-eela wamimman hadayna waijtabayna itha tutla AAalayhim ayatu alrrahmani kharroo sujjadan wabukiyyan

YUSUFALI: Those were some of the prophets on whom Allah did bestow His Grace,- of the posterity of Adam, and of those who We carried (in the Ark) with Noah, and of the posterity of Abraham and Israel of those whom We guided and chose. Whenever the Signs of (Allah) Most Gracious were rehearsed to them, they would fall down in prostrate adoration and in tears.

সূরা মারইয়াম

PICKTHAL: These are they unto whom Allah showed favour from among the prophets, of the seed of Adam and of those whom We carried (in the ship) with Noah, and of the seed of Abraham and Israel, and from among those whom We guided and chose. When the revelations of the Beneficent were recited unto them, they fell down, adoring and weeping.

SHAKIR: These are they on whom Allah bestowed favors, from among the prophets of the seed of Adam, and of those whom We carried with Nuh, and of the seed of Ibrahim and Israel, and of those whom We guided and chose; when the communications of the Beneficent Allah were recited to them, they fell down making obeisance and weeping.

KHALIFA: These are some of the prophets whom GOD blessed. They were chosen from among the descendants of Adam, and the descendants of those whom we carried with Noah, and the descendants of Abraham and Israel, and from among those whom we guided and selected. When the revelations of the Most Gracious are recited to them, they fall prostrate, weeping.

সূরা মারইয়াম

৫৮। নবীদের মধ্য এরাই তারা যাদের উপর আল্লাহ্‌ অনুগ্রহ বর্ষণ করেছেন – আদমের বংশধরদের মধ্য ,এবং যাদের আমি নূহের সাথে [ নৌকায় ] আরোহন করিয়েছিলাম তাদের মধ্য , এবং ইব্রাহীম ও ইস্‌মাঈলের বংশধরদের ২৫০৯ মধ্য যাদের আমি পথ নির্দ্দেশ দিয়েছিলাম ও মনোনীত করেছিলাম। যখন তাদের নিকট করুণাময়ের আয়াত আবৃত্তি করা হয়, তারা চোখের পানিতে আপ্লুত হয়ে সেজ্‌দায় লুটিয়ে পড়ে ২৫১০।

২৫০৯। এই আয়াতে পূর্ববর্তী নবীদের ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে বিভক্ত করা হয়েছে : ১ ) আদম থেকে নূহ্‌ ; ২ ) নূহ্‌ থেকে ইব্রাহীম; এবং ৩) ইব্রাহীম থেকে পরবর্তী সীমাহীন সময় পর্যন্ত অন্তর্ভূক্ত হচ্ছে ” যাদের আমি [আল্লাহ্‌ ] পথ নির্দ্দেশ দিয়েছিলাম ও মনোনীত করেছিলাম।” হয়তো এই সময় সীমা ছিলো আল্লাহ্‌র বাণী যতদিন বিকৃত হয়ে না যায় ও রসুলদের আগমন অত্যাবশ্যক হয়ে দাঁড়ায়। হযরত ইয়াকুবের অন্য নাম ছিলো ইসরাঈল।

২৫১০। ” তাহারা ” অর্থাৎ তারাই যারা আল্লাহ্‌র বাণীকে সমুন্নত রাখে, আল্লাহ্‌র পথ নির্দ্দেশের অনুসারী তাহারা শুধুমাত্র আল্লাহ্‌র নবী ও রাসুল নয়।

আরও দেখুনঃ 

সূরা মারইয়ামপার্ট-৩

সূরা মারইয়ামপার্ট-২

সূরা মারইয়ামপার্ট-১

সূরা মারইয়ামপার্ট-১

সূরা কাহফ পার্ট-৫

সূরা মারইয়াম – উইকিপিডিয়া

Leave a Comment